অনলাইন ডেস্কঃ বগুড়ায় রিকশাচালকের সততায় ২০ লাখ টাকা ফেরত পেলেন রাজীব প্রসাদ (৩৫) নামের এক ব্যবসায়ী।শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সকালে বগুড়া শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথা এলাকায় ভুলে ফেলে যাওয়া টাকাগুলো পুলিশের সহায়তায় ওই ব্যবসায়ীকে ফেরত দেন রিকশাচালক লাল মিয়া (৫৫)। এতে লাল মিয়ার সততায় খুশি হয়ে রাজীব প্রসাদ তাকে নতুন একটি রিকশা কেনার জন্য পঞ্চাশ হাজার টাকা উপহার দেন।

সার ব্যবসায়ী রাজীব প্রসাদ জানান, তিনি সদর উপজেলার জ্বলেশ্বরীতলা এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় থাকেন। নন্দীগ্রাম উপজেলায় তিনি সারের ব্যবসা করেন। শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে একটি রিকশায় উঠে সাতমাথায় নামেন। কিছুক্ষণ পর তিনি খেয়াল করেন সঙ্গে আনা তিনটি ব্যাগের মধ্যে টাকা ভর্তি ব্যাগটি তিনি রিকশায় ফেলে এসেছেন। এরপর তিনি সাতমাথা এলাকায় ওই রিকশাচালককে খুঁজতে থাকেন। পরে দ্রুত তিনি সদর থানায় গিয়ে বিষয়টি পুলিশকে জানান।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান বাংলানিউজকে জানান, সাতমাথা এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে প্রথমে রিকশাচালককে শনাক্ত করে তার (লাল মিয়া) ছবি উদ্ধার করা হয়। পরে অন্য রিকশাচালকদের সহযোগিতায় রিকশাচালক লাল মিয়াকে বগুড়া সদর উপজেলার স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকা থেকে খুঁজে বের করা হয়। এ সময় লাল মিয়া তার বাড়িতে যত্ন করে রাখা টাকার ব্যাগটি পুলিশকে ফেরত দেন।

তিনি আরো জানান, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা তার কার্যালয়ে উদ্ধার হওয়া টাকার ব্যাগ আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যবসায়ী রাজীব প্রসাদের হাতে তুলে দেন।

রিকশাচালক লাল মিয়া বলেন, তিনি ভাড়ায় রিকশা চালান। সকালে রিকশায় একটি ব্যাগে অনেকগুলো টাকা দেখে তিনি এর মালিককে খুঁজছিলেন তা ফেরত দেওয়ার জন্য। এজন্য টাকাগুলো তিনি যত্ন করে বাড়িতে রেখে আসেন। পরে টাকার ব্যাগটি তিনি পুলিশকে ফেরত দেন।

পিবিএ/এমআর

Please follow and like us:
error0
Tweet 20
fb-share-icon20